ইতালি সরকার ৮০ হাজার শ্রমিক নেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে। ২০২২ সালের জন্য এই স্পন্সর চালু করেছে ইতালি সরকার।দীর্ঘ কয়েক বছর পর আবার সরকার এমনটি চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

যেসব খাতে আশি হাজার শ্রমিক ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবে এর মধ্যে পর্যটন, কৃষি, ভারি পরিবহন এবং উৎপাদন। স্থায়ী ও অস্থায়ীভাবে এসব শ্রমিকরা বৈধভাবে প্রবেশ করার সুযোগ পাবে।
দেশটি মোট ৬৯ হাজার ৭০০ শ্রমিক নেবার গেজেট প্রকাশ করেছে গত ১৭ ই জানুয়ারী। এর আগে ১২ জানুয়ারী সকাল ৯টা থেকে আবেদন জমা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।তবে বিভিন্ন সেক্টরে বিভিন্ন সময়ে বা তারিখে আবেদন জমা নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি।দেশটি দুটি ক্যাটাগরিতে লোক নিবে। দেশটি নন সিজনাল ২৭ জানুয়ারী এবং ১লা ফেব্রুয়ারী সিজনাল আবেদন গ্রহন করবে। এভাবে একটানা ১৭ মার্চ পর্যন্ত আবেদন জমা নিবে বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম।নন সিজনাল ভিসায় দু-বছর ষ্টে-পারমিট এবং সিজনাল ভিসায় যারা যাবে তারা পাবে নয় মাসের বৈধ্যতা।তবে যেসব সেক্টরে শ্রমিক বা লোকবল নিয়োগ দিবে সেসব ক্ষেত্রে বাংলাদেশীদের নিয়োগ পাওয়া খুবই কঠিন হবে। নন সিজনাল ২৭ হাজার ৭০০ ভিসায় বিভিন্ন দেশ থেকে আবেদন করতে পারবে। অপরদিকে সিজনাল ভিসায় ৩১ দেশ থেকে মোট ৪২ হাজার শ্রমিক আসতে পারবে বাংলাদেশসহ। এই সেক্টরে বাংলাদেশীদের জন্য বেশ বড় একটা সুযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে কথা হলে ইমিগ্রেশন পরামর্শক অ্যাডভোকেট আনিচুজ্জামান আনিস বলেন, এ স্পন্সরটি নিঃসন্দেহে বাংলাদেশিদের জন্য সুখবর; কারণ দীর্ঘ প্রায় ১৪ বছর পর এ প্রক্রিয়াটি চালু করতে যাচ্ছে ইতালি সরকার। এ প্রক্রিয়াতে বাংলাদেশিরা সহজে বৈধভাবে ইত্যাদি প্রবেশ করার সুযোগ পাবে। এর আগে ৩০ হাজার ৮৫০ জন শ্রমিক নেওয়ার গেজেট প্রকাশ করে ইতালি সরকার।

By admin

2 thoughts on “বাংলাদেশীদের জন্য ইতালি যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ!”

Leave a Reply

Your email address will not be published.